সাতক্ষীরায় অসুস্থ বাবার জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে ছেলেকে বাসাতে যাওয়ার পথে বাধা দেওয়ার জন্য ইটাগশা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সুভাষ চন্দ্র সেনকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার (২ জুলাই) সাতক্ষীরা পুলিশ পরিচালক মুহাম্মদ মোস্তফা রহমান তাকে বরখাস্তের নির্দেশ দেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে (৮ জুলাই) তাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।

এদিকে, অমানবিক ঘটনা তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এইচকিউ) ইকবাল হুসেনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহকারী পুলিশ সুপার সাইফ আল ইসলাম এবং ইটাগশা থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক তারিক ফয়সাল বিন আজিজ।

কমিশন ইতিমধ্যে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। শুক্রবার বিকেলে তদন্ত কমিটির প্রধান মো। ইকবাল হুসেন তার অফিসে একজন প্রত্যক্ষদর্শী এবং একজন সংবাদ কর্মীর সাক্ষ্য দিয়েছেন।

যাইহোক, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পাইশনা গ্রামের বাসিন্দা মুহম্মদ রজব আলী মুরাল (৬৫) করোনার লক্ষণ নিয়ে বাড়িতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শ্বাসকষ্টের কারণে তাকে সিলিন্ডারের সাহায্যে বাড়িতে অক্সিজেন দেওয়া হয়েছিল। নগরীর বলাচবুল এলাকার ব্যবসায়ী ও কাউন্টি কাউন্সিল সদস্য প্যারাডাইজ আলফা তাকে অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়েছিলেন।